উজিরপুর প্রতিনিধি ঃ বরিশালের উজিরপুরের সাতলায় সরকারি ব্রীজের এ্যাপ্রোস দখল করায় স্থানীয়রা বিক্ষোভ মিছিল করেছে । ১৬ আগষ্ট মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৫টায় সাতলা ব্রীজ সংলগ্ন একতা বাজারে মোস্তাফিজুর রহমান হাওলাদার ওরফে চাপলিশের নেতৃত্বে প্রায় দুই শতাধিক লোকজন বিক্ষোভ মিছিল করেছে। জানাযায়, একই ইউনিয়নের প্রভাবশালী মোতালেব বিশ্বাস জোর করে সরকারি ব্রীজের এ্যাপ্রোস দখল করার অভিযোগ উঠেছে। সূত্রে জানা যায়, সাতলার আলামদি মৌজায় ১৮৬ নং খতিয়ানে ৪১ শতাংশ জমি মোস্তাফিজুর রহমান হাওলাদার গং, রিন্টু হাওলাদার গং, মাসুদ হাওলাদার গংদের নিকট থেকে ব্রীজ নির্মাণকালীন সময়ে সরকার জমি অধিগ্রহন করে। অধিগ্রহনকৃত জমি ছাড়াও অবশিষ্ট জমি ওই মালিকদের রয়েছে। উক্ত ব্রীজের এ্যাপ্রোসের জমিতে জোর পূর্বক ক্ষমতার দাপটে ভূমিদস্যু মোতালেব বিশ্বাস বালু ভরাট করে দোকানঘর নির্মাণ কার্যক্রম শুরু করছে। এতে অধিগ্রহনকৃত পূর্ব জমির মালিকরা অসহায় হয়ে পড়েছে। তাদের অবশিষ্ট জমি থাকার পরেও তারা কোন দোকানঘর নির্মাণ করেননি। এ সময় বিক্ষোভ মিছিলে অন্যানদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন রিন্টু হাওলাদার, মাসুদ হাওলাদার, বাজার কমিটির সাধারণ সম্পাদক আলম হাওলাদার, ব্যবসায়ী মোঃ সজল হাওলাদার, হারুন মোল্লা, ডাঃ টিপু হাওলাদার, তরিক হাওলাদার, সাবেক ইউপি সদস্য সুলতান হাওলাদার, এনামুল হাওলাদার, বীর মুক্তিযোদ্ধা জাকির হোসেন হাওলাদার, শাহজাহান বালী প্রমুখ। এ ব্যাপারে অভিযুক্ত মোতালেব বিশ্বাসের ছেলে মোঃ মনিরুজ্জামান বিশ্বাস জানান, আমাদের রেকর্ডীয় জমি এবং আদালতের মামলার রায় আমাদের পক্ষে হওয়ায় দোকানঘর নির্মাণ করছি। একতা বাজার কমিটির সভাপতি ও ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ শাহিন হাওলাদার জানান, সরকারি জমি ও রাস্তা দখল করে একাধিক দোকানঘর নির্মাণ করেছে মোতালেব বিশ্বাস। এতে উভয় পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষের আশঙ্কা রয়েছে। তবে বিষয়টি নিয়ে প্রশাসনের সুদৃষ্টি কামনা করছি। উজিরপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত অফিসার ইনচার্জ মোঃ মমিন উদ্দিন জানান, আইনকে হাতে তুলে নেয়া হলে কাউকে ছাড় দেয়া হবে না।