উজিরপুর প্রতিনিধি: বরিশালের উজিরপুরে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে এক গৃহবধুকে হত্যার উদ্দেশ্যে কুপিয়ে ও পিটিয়ে সজ্ঞাহীন করে ফেলেছে প্রতিপক্ষ সন্ত্রাসীরা বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।
এ ঘটনায় এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। আহত’র পরিবার সুত্রে জানা যায় উপজেলার ভরশাকাঠী গ্রামের নুরআলম ফকির (৪৫) ক্ষমতার দাপটে অন্যায় ভাবে গত রবিবার (২৩ মে) ভোরে একই বাড়ীর জাহাঙ্গির ফকিরের বসতবাড়ীর সম্মুখে ফুলের চাড়া উকড়ে ফেলেছে।
এর প্রতিবাদ করায় তাদের ভবনে ইট-পাটকেল ছুড়ে এবং বিভিন্ন ভয়ভীতি ও এলাকাছাড়া করার হুমকী দেয়। ভয়ে তারা ঘরের দরজা বন্ধ করে চুপ করে থাকে। এরপর ওই দিন সকাল ৯ টায় জাহাঙ্গির আলম ফকির(৪৬) ও তার স্ত্রী সোহেলী সাবরিনা পপি(৩৭) দুজনে বিদ্যুৎ বিল দেয়ার জণ্য উজিরপুরের উদ্দেশ্যে রওয়ানা হয়ে বসতবাড়ীর সন্নিকটে রাস্তায় পৌছামাত্র ওৎ পেতে থাকা প্রতিপক্ষ সন্ত্রাসী নুরআলম ফকির(৫০) ও তার স্ত্রী মাসুদা আলম(৪০), মেয়ে মালা বেগম (২৫), মুক্তা বেগম(২০), সাহারা আক্তার(১৪), মিলে দেশীয় ধারালো অস্ত্র দা ও লোহার রড দিয়ে পরিকল্পিত ভাবে ওই গৃহবধুকে হত্যার উদ্দেশ্যে কুপিয়ে ও পিটিয়ে রক্তাক্ত যখম করে।
এসময় তার স্বামী বাধা দিলে তাকেও লোহার রড দিয়ে ঘারে আঘাত করে কাবু করে ফেলে পরবর্তীতিতে প্রানে মেরে ফেলার হুমকী দিয়ে বীর দর্পে চলে যায়। ডাকচিৎকার শুনে স্থানীয়রা আহত গৃহবধু ও তার স্বামীকে চিকিৎসার জন্য প্রথমে উজিরপুর হাসপাতালে নেয়া হলে গৃহবধুর অবস্থা বেগতিক দেখে কর্তব্যরত চিকিৎসক উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল সেবাচিম হাসপাতালে প্রেরন করেন। বর্তমানে আহত গৃহবধু পপি বেগম হাসপাতালে মৃত্যুর সঙ্গে পাঞ্জা লড়ছে।
সন্ত্রাসী হামলায় গৃহবধুর মাথায় গরুতর যখম, ২টি হাত হাড় ভাঙ্গা যখমসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাত প্রাপ্ত হয়। এ ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। এব্যপারে আহত গৃহবধুর স্বামী জাহাঙ্গির আলম ফকির সাংবাদিকদের জানান আমার রোপিত কয়েকটি ফুলের চাড়া উকড়ে ফেলেছে। বিষয়টি নিয়ে প্রতিবাদ করায় আমার স্ত্রীকে কুপিয়ে ও পিটিয়ে হত্যার চেষ্টা চালায় সন্ত্রাসীরা। এমনকী আমার ঘারে লোহার রড দিয়ে আঘাত করেছে। এরপরেও ক্ষ্যন্ত হয়নি ওই সন্ত্রাসীরা অনবরত আমাদেরকে হুমকী দিচ্ছে। তাদের হুমকীর মুখে আমার শিশু সন্তানসহ পরিবারের সকল সদস্যদের নিয়ে আতঙ্কে রয়েছি।
বর্তমানে আমার স্ত্রী পপিকে বাচাঁতে বরিশাল হাসপাতালে রয়েছি। অপরদিকে হুমকীর মুখে আমরা মানবেতর জীবন যাপন করছি। অভিযুক্তরা বাড়ী ছেড়ে পালিয়ে থাকায় যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।
উজিরপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মোঃ জিয়াউল আহসান বিটিসি নিউজ এর প্রতিবেদককে জানান, অভিযোগ পেলে জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। ওই হামলাকারীদের দ্রুত গ্রেফতার পূর্বক দৃষ্টান্ত মুলক শাস্তির দাবী জানিয়ে প্রশাসনের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সু-দৃষ্টি কামনা করেন আহত পরিবার।