উজিরপুর(বরিশাল)প্রতিনিধিঃ
বরিশালের উজিরপুরের গুঠিয়া ইউনিয়নের এক কলেজ ছাত্রীকে ধর্ষণে অন্তঃসত্ত্বা এবং গর্ভপাত করানোর অভিযোগ ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে আদালতে মামলা দায়ের করা হয়েছে।

বরিশাল নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১-এর বিচারক জেলা ও দায়রা জজ আবু শামিম আজাদ আদালতে গত ৭ সেপ্টেম্বর মামলা করেন ওই কলেজ ছাত্রী।
আদালত ওই অভিযোগটি এজাহার হিসাবে গ্রহন করার জন্য উজিরপুর থানার ওসিকে নির্দেশ দেয়। আদালতের নির্দেশ অনুযায়ী উজিরপুর থানা পুলিশ মামলাটি গত ১৩ সেপ্টেম্বর গ্রহন করে তদন্ত শুরু করে।

মামলা ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, গুঠিয়া ইউনিয়ন ডিগ্রি কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের কলেজ ছাত্রীর সাথে রৈভদ্রাদী গ্রামের মুজিবুর রহমান দুলালের ছেলে ওই ইউনিয়নের ছাত্রলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক মাহমুদুন নবী আরিফের সাথে ওই ছাত্রীর সঙ্গে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে । প্রেমের সম্পর্ক এক পর্যায়ে শারীরিক সম্পর্কে গড়ায়। বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে বিভিন্ন সময়ে আরিফ ওই কলেজ ছাত্রীকে ধর্ষণ করতে থাকে। এক পর্যায়ে ধর্ষণের শিকার ওই ছাত্রী দুই মাসের অন্তঃসত্ত্বা হয়ে পরে। অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার কথা প্রেমিক আরিফকে জানালে বাচ্চা নষ্ট করার জন্য চাপ প্রয়োগ করতে থাকে এবং বাচ্চা নষ্ট করলে বিয়ে করবে বলে পুনরায় প্রতিস্রুতি দেয়। বাচ্চা নষ্ট হওয়ার পর বিয়ে করার কথা বললে পরিবারের অজুহাতে দেখিয়ে বিয়া করবে না বলে অস্বীকৃতি জানালে প্রথমে আদালতে পরে উজিরপুর থানায় মামলা করে ওই কলেজ ছাত্রী। মামলা নংঃ ১১।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত ছাত্রলীগ নেতার মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তার ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

উজিরপুর মডেল থানার ওসি আলী আর্শাদ জানান, আদালতের নির্দেশে একটি ধর্ষন মামলা আমরা গ্রহন করেছি। আসামিকে গ্রেফতারের জন্য পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।