ঢাকা-বরিশাল মহাসড়কের উজিরপুরের নতুন শিকারপুর এলাকায় বাস-মাইক্রোর মুখোমুখি সংঘর্ষে ছয় যাত্রী নিহতের ঘটনায় বাসচালক মশিউর রহমানকে (৩৫) গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব-৮। সোমবার (২৫ জুলাই) দুপুরে র‌্যাব-৮ এর উপ-পরিচালক মেজর মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম বিষয়টি নিশ্চিত করেন। বাসচালক মশিউর বাগেরহাটের গোটাপাড়া এলাকার ইউসুফ আলী শেখের ছেলে ও মোল্লা ট্রাভেলসের চালক। র‌্যাব-৮ প্রেসবিজ্ঞপ্তিতে জানান, ২১ জুলাই দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে গাজীপুর থেকে কুয়াকাটাগামী একটি মাইক্রোবাস উজিরপুরের নতুন শিকারপুর এলাকায় পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে আসা মোল্লা ট্রাভেলসের বেপরোয়া গতির একটি বাস সেটিকে ধাক্কা দেয়। এতে ঘটনাস্থলে চারজন ও বরিশাল শের-ই-বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে আরও দুইজনের মৃত্যু হয়। গুরুতর আহত হন চারজন। ঘটনার পর থেকে মোল্লা পরিবহনের বাসটিকে ফেলে এর চালকসহ সংশ্লিষ্টরা পালিয়ে যান। পরে গৌরনদী হাইওয়ে থানা পুলিশ দুর্ঘটনাকবলিত মোল্লা ট্রাভেলসের বাসটি ও মাইক্রোবাসটি জব্দ করে তাদের হেফাজতে নেয়। এ ঘটনার পর মাইক্রোবাস চালক মোঃ আছুর উদ্দিন রানা’র ছেলে সাব্বির বাদী হয়ে শনিবার রাতে গৌরনদী হাইওয়ে থানায় সড়ক পরিবহন আইনে মামলা করেন। তথ্যপ্রযুক্তির মাধ্যমে শনাক্ত করে পালিয়ে থাকা বাসচালক মশিউর রহমানকে বরগুনা বাসস্ট্যান্ড এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করে র‌্যাব-৮। তাকে গৌরনদী হাইওয়ে থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে। গৌরনদী হাইওয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ শেখ বেল্লাল হোসেন জানান, মামলার একদিন পর র‌্যাব-৮ বাসচালককে গ্রেফতার করে থানায় হস্তান্তর করলে আদালতের মাধ্যমে ওই চালককে জেল হাজতে প্রেরন করা হয়েছে।