দেশজুড়ে স্থানীয় সরকার নির্বাচনের ডামাডোল বাজতে শুরু করেছে। দলীয় প্রতীকে অনুষ্ঠিতব্য এই নির্বাচনে মনোনয়ন পেতে ইতোমধ্যে দৌড়ঝাপ শুরু হয়েছে। আসন্ন বরিশালের ওটরা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে অংশ নিতে জনসংযোগ শুরু করেছেন ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাবেক সভাপতি আলিফ মাহমুদ জুয়েল। জনপ্রিয়তার শীর্ষে থাকা তরুণ, ত্যাগী এই ছাত্রনেতা ইতোমধ্যে এলাকাবাসীর মনে জায়গা করে নিয়েছেন।
যোগীরকান্দার বাসিন্দা জামাল হোসেন মৃধা বলেন, জুয়েল ভাই করোনা মহামারীর মধ্যে অসহায় মানুষের খাদ্য সহায়তা দেওয়াসহ এলাকার বিভিন্ন উন্নয়ন ও সামাজিক কর্মকান্ডে ভূমিকা রেখেছেন। কেউ বিপদে পরলে তিনি সাধ্যমতো সহায়তা করার চেস্টা করেন।

বিএনপি-জামায়াতের সময় ইউনিয়ন ছাত্রলীগের নেতৃত্বে থাকা জুয়েল দলের দু:সময়ে নৌকার কান্ডারি সমুন্নত রাখতে পিছু হটেননি। তৎকালিন ক্ষমতাশীন দলের হয়রানি স্বত্বেও দলীয় কর্মসূচি বাস্তবায়ন করেছেন সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়ে। এ কারণে উদীয়মান এই নেতাকে ওটরা ইউনিয়ন পরিষধের চেয়ারম্যান হিসেবে চাইছেন এলাকাবাসী। জানা গেছে, ইতোমধ্যে তিনি সাধারণ মানুষের সঙ্গে সাক্ষাত ও বেশ কয়েকটি পথসভা করেছেন। এছাড়া উন্নয়ন কার্যক্রমেও অংশগ্রহন করছেন।
এ বিষয়ে মোহাম্মদ জুয়েল বলেন, সুখে-দুখে এলাকাবাসীর পাশে থাকার চেস্টা করেছি। জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত হলে মানুষের সেবা করার আরো সুযোগ হবে। এলাকাবাসী আমাকে নির্বাচন করার জন্য বলছেন। জনমনের প্রত্যাসা অনুসরে দল আমার প্রতি সুবিবেচনা করবে বলে আশাকরি।
তিনি আরো বলেন, দক্ষিণ অঞ্চলের আওয়ামী লীগের অভিভাবক, আমাদের প্রিয় নেতা আবুল হাসনাত আব্দুল্লাহর নির্দেশে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সম্পাদক অবশ্যই ত্যাগীদের মূল্যায়ন করবেন। দলীয় মনোনয়ন নিয়ে নির্বাচনে অংশ নিলে জনগণের ভালোবাসা ও রায়ে জয়যুক্ত হয়ে তাদের সেবার মধ্য দিয়ে দলের সুনাম অক্ষুন্ন রাখতে সচেস্ট থাকবো।