সম্প্রতি অনুষ্ঠিত জেলা পরিষদ নির্বাচনে সংক্ষুব্ধ প্রার্থী বা তার পক্ষে অন্য কোনো ব্যক্তি নির্বাচনী ট্রাইব্যুনালে মামলা দায়ের করতে পারবেন।

গত ১৭ অক্টোবর দেশের সবচেয়ে বড় স্থানীয় সরকার জেলা পরিষদ নির্বাচন সম্পন্ন করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)।


ইতিমধ্যে নির্বাচনী মামলা দায়েরের জন্য নির্বাচনী ট্রাইব্যুনাল ও আপিল ট্রাইব্যুনাল গঠন করেছে সংস্থাটি।
ইসির আইন শাখার উপ-সচিব মো. আব্দুছ সালাম জানিয়েছেন, সংশ্লিষ্ট জেলার যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ এবং জেলা ও দায়রা জজকে নিয়ে যথাক্রমে নির্বাচনী ট্রাইব্যুনাল এবং নির্বাচনী আপিল ট্রাইব্যুনাল গঠন করা হয়েছে।

আইন অনুযায়ী, নির্বাচনের ফলাফল গেজেট আকারে প্রকাশের ৩০ দিনের মধ্যে প্রতিদ্বন্দ্বী যেকোনো প্রার্থী ট্রাইব্যুনালে আবেদন করতে পারবেন। ট্রাইব্যুনাল সংশ্লিষ্ট প্রার্থীর আবেদনের ১৮০ দিনের মধ্যে আবেদন নিষ্পত্তি করবেন।

এছাড়া ট্রাইব্যুনালের বিচারে সন্তুষ্ট না হলে সংক্ষুব্ধ প্রার্থী ট্রাইব্যুনালে রায়ের ৩০ দিনের মধ্যে আপিল ট্রাইব্যুনালে আবেদন করতে পারবেন। আপিল ট্রাইব্যুনাল সেই আবেদনের ১৮০ দিনের মধ্যে আপিল আবেদন নিষ্পত্তি করবেন।

ইতোমধ্যে জেলা পরিষদ নির্বাচনের গেজেট প্রকাশ সম্পন্ন করেছে ইসি। তাই সকল প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীই ট্রাইব্যুনালে যেকোনো অভিযোগ দায়ের করতে পারবেন।