ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জ পৌর শহরের ঐতিহাসিক পীরডাঙ্গী গোরস্থানের ১৯টি কবর থেকে কঙ্কাল চুরির ঘটনা ঘটেছে। এ নিয়ে এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। শনিবার এ খবর ছড়িয়ে পড়লে লোকজন দ্রুত কবরস্থানে এসে নিজ নিজ স্বজনের কবর দেখার জন্য গোরস্থানে ভিড় করছেন। চুরি হওয়া কবর গুলোর পাশে গামছা, থ্রি কোয়ার্টার প্যান্ট ও টি-শার্ট পাওয়া গেছে। ধারণা করা হচ্ছে, কঙ্কাল চুরি করার উদ্দেশে কবরে গর্ত করা হয়েছে এবং কবরে প্রবেশের সময় এসব কাপড় ব্যবহার করা হয়েছে।

শনিবার বিকেলে ঠাকুরগাঁও জেলা প্রশাসক মাহবুবুর রহমান, জেলা পুলিশ সুপার জাহাঙ্গীর হোসেন, পীরগঞ্জ সহকারী কমিশনার (ভূমি) কামরুল হাসান, পীরগঞ্জ সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার আহসান হাবিব ও থানার অফিসার ইনচার্জ জাহাঙ্গীর আলম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

পুলিশ সুপার জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, ‘প্রায় এক বছরের মধ্যে যে সব লাশ দাফন করা হয়েছে এখনও সেগুলোর কবর ধ্বসে পড়েনি। মূলত এসব কবর প্রস্থে ১ ফুট ও দৈর্ঘ্যে ১ থেকে ৩ ফুট পর্যন্ত খুঁড়ে আবার মাটি চাপা দেওয়া হয়েছে। এটি একটি কঙ্কাল চুরির চক্রের দ্বারা সংঘটিত ঘটনা হতে পারে। বিষয়টি নিয়ে পুলিশ তদন্ত করছে।’

জেলা প্রশাসক মাহবুবুর রহমান বলেন, ‘ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। ১৯টি কবরে গর্ত দেখা গেছে। বিষয়টি তদন্তে জেলা পুলিশ কাজ করছে।’

প্রসঙ্গত, কয়েক শতাধিক বছরের পুরনো এ ঐতিহাসিক পীরডাঙ্গী কবরস্থানটি ৫০ একর জায়গা নিয়ে রয়েছে। হযরত পীর সিরাজ উদ্দীন আওলিয়া আরবী (যার নাম অনুসারে পীরগঞ্জ) সহ হাজার হাজার মানুষের কবর রয়েছে এখানে।