বরিশাল টু সাতলা সড়কের দুই পাশে গাছের স্তুপ করে রাখার অভিযোগ উঠেছে অসাধু করাতকলের সমিল ব‍্যবসায়ীদের বিরুদ্ধে। আধা কিলোমিটার জুড়ে সড়কের দুই গাছের স্তুপ করে রাখায় ভোগান্তিতে পড়তে হচ্ছে যান্ত্রিক চালকদের । এ কারণে প্রায় ঘটছে সড়ক দূর্ঘটনা। প্রশাসন নীরব ভূমিকায়। সরজমিনে গিয়ে ও স্থানীয় সূত্রে জানাযায় উপজেলার সানুহার থেকে সাতলা প্রতিনিয়ত চলাচল করে বাস, মাহিন্দ্রা, মালবাহী ট্রাক, কাভারভ‍্যান,অটোসহ বিভিন্ন যান্ত্রিক গাড়ী। হাজার হাজার মানুষের গাড়ীযোগে চলাচলের একমাত্র রাস্তা। এরমধে‍্য বামরাইল ইউনিয়নের খোলনা গ্রামে প্রধান সড়কে ওই এলাকার সমিল মালিক রবিউল বেপারী ও সোহাগ সরদার মিলে ক্ষমতার দাপটে খোলনা সরকারি প্রাথমিক বিদ‍্যালয়ের সামনে থেকে শুরু করে ইদগাহ মার্কেট পর্যন্ত প্রায় আধা কিলোমিটার রাস্তার দুপাশে বছরের পর বছর গাছের স্তুপ করে রাখে এবং সমিল থেকে কাটা গাছের চেরার পাশাপাশি রাস্তা জুড়ে গাছ মজুদ করে অবাধে ব‍্যবসা চালাচ্ছে। যেন দেখার কেউ নেই। এমনকী রাস্তায় গাছ স্তুপ করে রাখায় ওই রাস্তা দিয়ে পথচারীরা পারাপার করতে গিয়ে প্রায়ই দূর্ঘটনার শিকার হচ্ছে। এ ব‍্যাপারে অভিযুক্ত রবিউল বেপারীর কাছে বিষয়টি জানতে চাইলে তিনি বলেন সরকারি রাস্তায় আমরা কিছু গাছ রেখেছি এবং গাছের বেপারিরা অধিক গাছ রেখেছেন। তাতে এলাকার মানুষের ক্ষতির কিছুই নেই। সোহাগ সরদার জানান আমি রাস্তার উপরে গাছ রাখিনাই। বেপারিরা রেখেছে। তাদেরকে নিষেধ করা হবে। উজিরপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ আলী আর্শাদ জানান তাদেরকে মৌখিকভাবে বেশ কয়েকবার নিষেধ করা হয়েছে। এরপরেও না শুনলে তাদের বিরুদ্ধে আইনগত ব‍্যবস্হা গ্রহন করা হবে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফারিহা তানজিন জানান এধরনের অপরাধ মূলক কাজের কোন সুযোগ নেই। তদন্ত সাপেক্ষে আইনানুগ ব‍্যবস্হা গ্রহন করা হবে।