শফিক শাহিন, বানারীপাড়া (বরিশাল) প্রতিনিধি।

বরিশালের বানারীপাড়া পৌরশহরের বন্দর বাজার রিক্সা স্ট্যান্ডে মাস্ক না পড়ার অপরাধে ১৬ জনকে বিভিন্ন মেয়াদে ৪৭০০ শত টাকা জরিমানা করেন ভ্রাম্যমাণ আদালতের ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ মফিজুর রহমান।

মাস্ক মুখে না পড়ে যারা ভ্রাম্যমাণ আদালতের মুখোমুখি হয়েছেন, তাদের অনেককে গুণতে হয়েছে নগদ জরিমানা, সঙ্গে পেয়েছেন বিনামূল্যের মাস্কও।

শনিবার ৫ ডিসেম্বর দুপুর ১২ টার দিকে বানারীপাড়া উপজেলা প্রশাসনের একটি টিমের ভ্রাম্যমাণ আদালতের ২ ঘণ্টার কার্যক্রম পর্যবেক্ষণ করে পাওয়া যায় এমন চিত্র।

জেল-জরিমানায় সীমাবদ্ধ না থেকে নিম্ন আয়ের মানুষদের হাতে বিনামূল্যের মাস্কও তুলে দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালতের ম্যাজিস্ট্রেট।

বাংলাদেশে করোনাভাইরাস মহামারীর ’দ্বিতীয় ঢেউ’ সামলানোর পদক্ষেপের অংশ হিসাবে মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক করেছে সরকার।
তবে রাস্তা দিয়ে যাওয়া কয়েকজন মাস্কবিহীন রিকশাচালককে থামিয়ে মাস্ক হাতে তুলে দেন পুলিশ সদস্য ও উপজেলা প্রশাসনের কর্মীরা।

এ সময় ‘মাস্ক পরেননি কেন’, জানতে চাইলে একজন রিকশাচালক ম্যাজিস্ট্রেটকে বলেন, “আমার একটা মাস্ক ছিল, রাস্তায় পড়ে গেছে।”

বেলা ২ টার দিকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের কার্যক্রম শেষ করেন ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ মফিজুর রহমান। তিনি বলেন, “মাস্কের বিষয়ে সচেতনতা তৈরি করতে আমরা এই ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করছি। জরিমানা আদায়ের পাশাপাশি মাস্কও বিতরণ করা হয়েছে। তিনি আরও বলেন কয়েক জন মোটরসাইকেল চালকের মুখে মাস্ক ও মাথায় হেলমেট না থাকায় ও জরিমানা করা হয়।