প্রতিনিধি, উজিরপুর(বরিশাল)ঃ

বরিশালের উজিরপুরে অর্থের অভাবে চিকিৎসা করাতে পারছে না সন্ত্রাসী হামলায় আহত মুক্তিযোদ্ধা পরিবার । মৃত্যুর মুখে আহত বাকি আর দুইজন। এগিয়ে আসেনি মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল, উপজেলা প্রশাসনসহ কোন সংগঠন। স্থানীয় ও পারিবারিক সূত্রে জানাযায়, ২৯ জুলাই জমিজমা বিরোধের জেরে মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের উপর হামলা চালিয়েছে প্রতিপক্ষরা। এ হামলায় গুরুতর আহত হয়েছে একই পরিবারের ৫জন। হামলায় আহত মুক্তিযোদ্ধা দেলোয়ার হাসপাতালে নেয়ার পথে মৃত্যু বরন করে। বাবার মৃত্যুর ১০ দিন পর শনিবার ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালে ছেলে বিপ্লব মারা যায়। রবিবার সকালে নিহত বিপ্লবের জানাযা শেষে বাবার পাশে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়। এসময় এলাকাবাসী হত্যাকারীদের দ্রুত গ্রেফতার করে বিচারের দাবীতে বিক্ষোভ মিছিল করে। উজিরপুর মডেল থানার আলী আর্শাদ খুনিদের গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক বিচারের আশ্বাস দিলে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়। বাকি আহত ৩ জনের ভিতর দুই জনের অবস্থা আশংকাজনক। এ ঘটনায় আহত মামলার বাদী জুয়েল জানান, অর্থের অভাবে চিকিৎসা করাতে পারছি না তাই গুরুতর আহত আমার মেঝো ভাই সোহাগ তালুকদার ও বড় ভাবি রোজিনার অবস্থা খুবই খারাপ হওয়ারবপরও ঢাকা মেডিকেল হাসপাতাল থেকে নাম কাটিয়ে বরিশাল শেবাচিম হাসপাতালে এনে ভর্তি করেছি। তাদের চিকিৎসা করাতে আমরা খুব হিমসিম খাচ্ছি। কেউ আমাদের পাশে দাড়াইনি । এ ব্যাপারে উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের ডেপুটি কমান্ডার হারুন অর রশিদ জানান,কিছুদিনের ভিতর মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল আহত মুক্তিযোদ্ধা পরিবারকে আর্থিক সহায়তা প্রদান করবে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা প্রনতী বিশ্বাস জানান, আমরা বিষয়টি দেখছি আহত মুক্তিযোদ্ধা পরিবারকে আমাদের পক্ষ থেক আহত ওই মুক্তিযোদ্ধা পরিবারকে আর্থিক সহায়তা করা হবে।