পানি সম্পদ উপমন্ত্রী একেএম এনামুল হক শামীম বলেছেন, বিএনপি নেতাদের যদি লজ্জা শরম থাকতো তাহলে তারা লোডশেডিং নিয়ে কথা বলতো না। তারা যখন বিদ্যুৎ নিয়ে কথা বলে তখন তাদের শাসনামলের ঘণ্টার পর ঘণ্টা লোডশেডিংয়ের সেই দুঃসময়ের কথা মনে পড়ে। তারা বিদুৎ এর পরিবর্তে খাম্বা দিয়েছিল। বিদ্যুৎ নিয়ে আন্দোলন করায় সাধারণ মানুষকে হত্যা করেছিল। এখন তারা মানুষকে ধোকা দিয়ে ক্ষমতায় যেতে চায়।

আজ শনিবার বিকালে নড়িয়া পৌর আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

সারা বিশ্বেই এখন বিদ্যুৎ এর সমস্যা, সবাইকে ধৈর্য্য ধরে এ সমস্যার মোকাবিলা করার আহ্বান জানিয়ে আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল হক শামীম বলেন, বিশ্বব্যাপী দুর্যোগ, মহামারি এবং যুদ্ধ চলছে। এ কারণে নানা সংকটের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে বিভিন্ন দেশ। দেশের প্রতিটি মানুষকে যার যার জায়গা থেকে এ ক্ষেত্রে এগিয়ে আসতে হবে। বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও পানি ব্যবহারে সাশ্রয়ী হতে হবে। সবাইকে ধর্য্য করে পরিস্থিতি মোকাবিলা করতে হবে।
এনামুল হক শামীম বলেন, নির্বাচনের সময় আসলেই বিএনপি যে কোন উপায়ে ক্ষমতা দখলের জন্য মরিয়া হয়ে ওঠে। নির্বাচন ও গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়াকে প্রশ্নবিদ্ধ করার অপচেষ্টায় লিপ্ত হয়। তাদের বোঝা উচিত জনগণের জন্য কিছু না করে শুধু বাগাড়ম্বর বক্তব্য-বিবৃতি প্রদান করে।

তিনি বলেন, বিএনপি যখনই ক্ষমতায় এসেছে তখনই নিজেদের স্বার্থ হাসিলে গণবিরোধী সিদ্ধান্ত গ্রহণের মধ্য দিয়ে জনগণের উপর নির্যাতনের স্টিম রোলার চালিয়েছে। এখন নির্বাচনকে সামনে রেখে নানা ষড়যন্ত্রে লিপ্ত হয়েছে।

দলীয় নেতাকর্মীদের উদ্দেশে তিনি বলেন, আওয়ামী লীগকে ঐক্যবদ্ধ থাকতে হবে। ষড়যন্ত্রের ব্যাপারে সতর্ক থাকতে হবে। ঐক্যবদ্ধ আওয়ামী লীগকে কোন শক্তি নেই পরাজিত করতে পারে। আওয়ামী লীগকে শক্তিশালী করা হলে বঙ্গবন্ধুকন্যার হাত শক্তিশালী হবে।

নড়িয়া পৌরসভা আওয়ামী লীগের সভাপতি শহিদুল ইসলাম সরদারের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক আবু জাফর শেখের সঞ্চালনায় সভায় বক্তব্য রাখেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিবিষয়ক উপ-কমিটির সদস্য জহির সিকদার, নড়িয়া পৌরসভার মেয়র আবুল কালাম আজাদ, জেলা আওয়ামী লীগ নেতা এনায়েত মুন্সি, নড়িয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ফজলুল হক মাল, সহ-সভাপতি বাদশা শেখ, সাধারণ সম্পাদক মাস্টার হাসানুজ্জামান খোকন, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক শহিদুল ইসলাম বাবু রাড়ী, স্থানীয় নেতৃবৃন্দের মধ্যে বাদশা শেখ, দুলাল বেপারি, আলি কাজি, শহিদুল ইসলাম বাবু রারি, শহিদুল সিকদার, জকির বেপারি, নামজা আক্তার প্রমুখ।