ঢাকা: রোহিঙ্গাদের জোর করে ভাসানচরে পাঠানো হয়নি বলে জানিয়েছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। সেখানে যারা গেছেন, তারা সবাই স্বেচ্ছায় গেছেন।

বুধবার (৩০ ডিসেম্বর) মন্ত্রণালয় থেকে দেওয়া এক বিবৃতিতে এ তথ্য জানানো হয়।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায়, গত ৪ ডিসেম্বর প্রথম দফায় ১৬৪২ জন রোহিঙ্গাকে ভাসানচরে পাঠানো হয়। আর ২৯ ডিসেম্বর ১৮০৪ জনকে পাঠানো হয়েছে। কোনো রোহিঙ্গাকে জোর করে বা আর্থিক প্রলোভন দেখিয়ে ভাসানচরে পাঠানো হয়নি। আর যারা সেখানে গেছেন, তাদের জোর করার কোনো প্রশ্নই ওঠে না।

৩০ বছরের পুরোনো ভাসানচর পুরোপুরি সুরক্ষিত। আম্পানের সময়ও এ দ্বীপে কোনো ক্ষতি হয়নি। এখানে আবাসন, সুপেয় পানি, চিকিৎসাসহ নানা ধরনের সুবিধা নিশ্চিত করা হয়েছে।

মিয়ানমারের নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে, রোহিঙ্গাদের নিজ ভূমি মিয়ানমারে ফেরাতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে জোরালো পদক্ষেপ নেওয়ার জন্য আহ্বান জানিয়েছে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।